কর্কট রোগ বাঁধছে বাসা, এই পৃথিবী’র ফুসফুসে
মেদিনী’র জ্বর উর্ধমুখী, প্রথমে যা ছিল ঘুসঘুসে
লেলিহান ওই বহ্নিশিখা, জীবপ্রাণ কে করছে গ্রাস
সুন্দর ওই বন্যসবুজ, কলিকালে হচ্ছে ত্রাস

এনাকোন্ডা, ইগুয়ানা, আর ভয়ঙ্কর ওই জাগুয়ার
প্রাণভয়ে তারা দিকভ্রান্ত, সময় বুঝি শেষ এবার
মানব শুধু আছে খাসা, ভাবছে কি বা যায় আসে
আজ আমার স্বার্থ মিটুক, দেখবো পরে আশপাশে

বিধাতা আজ মুচকি হাসেন, দেখেন কান্ডকারখানা
প্রকৃতি’র রস নিংড়ে নিয়ে, মানব ব্যোমে দেয হানা
এবার বদলা নেওয়ার পালা, ব্রহ্মান্ড ফুঁসছে আজ
কোথাও জলের প্লাবনে, আর কোথাও হেনে মরণ বাজ

সাজানো সব বাগান এবার হচ্ছে শুধুই শুস্ক কাঠ
সবুজের সমারোহ, হচ্ছে রুক্ষ কঠিন মাঠ
জনসংখ্যার বাড়াবাড়ি, করছে ধরণী কে দীন
সুস্থ্য জীবন যাপন করা’র সম্ভাবনা বড়োই ক্ষীন

মস্তিষ্কের বিকৃতি আজ ফুসফুস কে করছে ঘাত
হৃদযন্ত্র করলে বিকল, হবো মোরা কিস্তিমাত
জীবন ধারণ করতে হলে, প্রকৃতি আজ হোক না মীত
এসো মোরা সবে মিলে শক্ত করি জীবন ভিত

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.