বড়বেলার শৈশব

বয়স তো আর কম হলোনা, দুই কুড়ি দশ পার|
কালে কালে বদলে গেছে সময় ব্যবহার |
শৈশবেতে অশেষ সময়, বড় হওয়ার তাড়া|
বড়বেলায় খুঁজতে বসি, সময় কে দেয় ভাড়া|

খুঁজতে গিয়ে ফিরতে হলো, স্কুল জীবনের কালে|
আটকে পড়ি সুখস্মৃতি’র অম্লমধুর জালে|
বন্ধু রা সব হয়েছে বড়, নিজ নিজ স্থানে|
তবুও দেখি বাল্যকাল, সবাইকে আজ টানে|

মাঝে মাঝে অহং বাবু, দেন যে মাথা চাড়া|
ভাবের স্রোতে আড়ি যেন, চায় যে পেতে সাড়া|
মানের রূপান্তর যে অভিমানে হলো প্রায়|
মধুর আবেশ আতকে উঠে, করছে যে হায় হায়!

এমন সময় অহং বাবু, নিজেই দিলেন ক্ষ্যামা|
আড়ি হামাগুড়ি দিয়ে ভাবের ঘরে জমা|
আব্বুলিশের জোয়ারে সব মান হলো খান খান|
আবার সবাই মিলে ধরি, শৈশবেরই গান|

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.