তুলির হাসি

ছোট্ট তুলি করেছে পণ , হাসি মুখে আনবে না
সুড়সুড়ি বা কাতুকুতু, দাবি কারো মানবে না
মনটা তার আজ ভারী ব্যাজার, হাস্যপেশী থাক নিঝুম
আনন্দ থাক ব্রাত্য আজি, অট্টহাসি দিক না ঘুম

এমন কঠিন ব্রত কেন, সবার প্রশ্ন ওর কাছে
“তোমার মতন মিষ্টি হাসি’র মালিক আর কজন আছে?”
“গোমড়াথেরিয়াম হওয়া’র থাকতে পারে কি হেতু?”
“টেডি টাকে আদর করে, মন টাকে আজ কর থিতু”

তুলি তবু গোমড়া মুখে, বসে বসে নখ খোটে
নাকটি ফুলে কান্না এবার উঠবে ফুটে তার ঠোঁটে
পরম প্রিয় তালের বড়াও, বোধ করি আজ করবে ফেল
এমন ভীষণ প্রতিজ্ঞাতে, আনন্দের আজ হবেই জেল

হঠাৎ বাড়ির’ কাজের মাসি, বস্তা হাতে হলেন বার
বস্তা মধ্যে বিড়াল ছানা, করবেন আজ পগার পার
তুলি’র ধৈর্য্য ভাঙলো যে বাঁধ, দিলো সে ছুট দোর পানে
পুসি টুসি’র বিদায় যাত্রা, মানছে না যে তার প্রাণে

পুসি টুসি’র মাতা মেনি, বিপ্লবে সেও দিলো যোগ
তুলি-মেনি’র আক্রমণে, পারুল মাসির’ কি দুর্ভোগ!
ঝুলি টাকে ছিনিয়ে নিয়ে, তুলি হলো পগার পার
বাড়ির চিলেকোঠায় সেঁধোয়, পারুল মাসি মানলো হার

বস্তা থেকে হাঁচড় পাঁচর করে বেড়োয় পুসি টুসি
সাফল্যের প্রসাদ পেয়ে, ছোট্ট তুলি বেজায় খুশি
খুশি’র তোরে ভাঙলো যে পণ, মুখে তুলির’ অমল হাসি
আনন্দের এই কারামুক্তি, জাগায় যে সুখ রাশি রাশি

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.