বিজ্ঞানের রঙ্গ

মাঝে মাঝে অবাক চোখে, দেখি কত রঙ্গ
বিজ্ঞানেরই মহিমাতে হলো নিয়ম ভঙ্গ
মানব জীবন করতে সহজ, দেখছি কত খেলা
সেই খেলার ছলে বাইতে হলো, স্তব্ধ জীবন ভেলা

সময় মূল্য বড়ই বেশি, সাশ্রয় প্রয়োজন
মোটর গাড়ি চেপে মানুষ বাড়ায় যে ওজন
আরাম করে বসতে সোফা, ঘরে শোভা পায়
মেঝে তে বসলে এখন, উঠতে কষ্ট হয়

টেলিফোন এর প্রয়োজন, তা সর্বজন বিদিত
চোখের দেখা হলো যে ভাই, অত্যন্ত সীমিত
এড্রেস বুক ধরে রাখে, ঠিকানা সব ঠিক
মনের খাতা হলো সাদা, স্মৃতিভ্রষ্ট, ধিক

গুগল বাবু আছেন সদাই, সর্বজ্ঞ সবজান্তা
শেখার পাট, তা উঠুক লাটে, আছেন ক্লাউজ, ওই সান্তা
বই খাতা সব রইলো পরে, কম্পিউটার টাই দামী
এই সব ভন্ডামি দেখে, হাসেন অন্তর্যামী

ইন্টারনেট এর দৌলতে যে, জগৎ হলো ছোট
পাশের বাড়ির ছোটু’র সাথে, আর কি দেখা হত?
কিংবা নিচের ফ্ল্যাটএ থাকেন দাদু ও ঠাকুমা
তাদের কাছে হযেছে কবে, ভালবাসা জমা?

খেলার মাঠে উঠছে বাড়ি, চিন্তা কিছু নাই
কম্পিউটার গেম খেলে শিশু হবেই যে হাই ফাই
শৈশব, তা কাটল ঘরে, চার দেয়াল এর মাঝে
টিভি’র বৃত্বে রইলো ঝুলে, জ্ঞান কুড়োবার কাজে

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.