পথে নামার হলো সময়, পথে কোনও নেই নিশান
চলার সুখে চলতে যদি, পারো তবে দাও প্রমান
বুভুক্ষু সব ছুটছে দেখো, লক্ষ্য তাদের সুখ পাখি
অধরা সে যায় যে উড়ে, সুখের নামে সব ফাঁকি

ছোটার ফাঁকে কবিবর এর কাব্য তেড়ে আসলো ওই
কোমল স্বরে জোড়েন আলাপ, লাজুক মুখে শিল্পী যেই
চিত্রশিল্পী দিলেন জ্বেলে, রং মশাল ওই ক্যানভাসে
ব্যায়ামবীরের বজ্রনাদে, ঘেঁষছে না কেউ আশ পাশে

সবাই ব্যস্ত প্রদর্শনে, আপন আপন গুণ গুলো
নিজের কিংবা সন্তানেরই, উড়ুক বাহবা ধুলো
দৃষ্টি টা স্থির লক্ষ্যে যখন, চারি পাশে যেই থাকুক
সুখ পাখি টা আমিই পাবো, অন্য আঁধারে ঢাকুক

মরণপণ এই ইঁদুরদৌড়ে, কে জেতে আর কে হারে
অভিলাষা বিড়াল টা যে, পড়লো এসে এই ঘাড়ে
পরশ্রীকাতর হয়ে ভালো টা কে ভুল ভাবি
এর মাঝে যে ছোট্ট জীবন খাচ্ছে বড় জোর খাবি

রোসো রোসো, থামো এবার, তাকাও নিজের হৃদমাঝে
রক্তাক্ত বিবেক কি আজ, যেতে পেরেছে কাজে?
সবার দৃষ্টি ছুড়ছে কি আজ, ভালোবাসা না ঘৃণা?
গর্বে চওড়া হচ্ছে নাকি চুপসে গেছে আজ সীনা?

চারিদিকে দেখ তাকিয়ে, সুখের কোনও অভাব নেই
অঢেল আছে, অভাব শুধু, ঠিক করে টা চাওয়া তেই
এবার শুধু শান্ত মনে, ভালোবাসা’র বীজ ছড়াও
সুখ পাখি টা আসবে ফিরে, যতই তুমি তফাৎ যাও

2 Replies to “ইঁদুরদৌড়”

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.